আজ ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ই নভেম্বর ২০১৯ ইং

ধেয়ে আসা ভয়ানক ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ বরিশালে আঘাত হানার আশঙ্কা

খোকন হাওলাদার ॥ বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আরও শক্তিশালী হয়ে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিয়েছে। এটি বর্তমানে উত্তর-পশ্চিম উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে। আগামীকাল শনিবার মধ্যরাতের দিকে ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের খুলনা-বরিশাল অঞ্চলের ওপর আঘাত হানতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। তবে তারা বলেছেন, উপকূলে আঘাত হানার আগে কিছুটা দুর্বল হয়ে যেতে পারে ‘বুলবুল’।
আজ শুক্রবার আবহাওয়া অধিদপ্তর থেকে জানানো হয়, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর কারণে সাগর উত্তাল হয়ে উঠেছে। এ জন্য দেশের তিনটি সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজারকে শুক্রবার ভোর ছয়টা থেকে ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত নৌযানগুলোকে সাগরে চলাচল না করে নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।
আরও বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড়টি আরও শক্তিশালী হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে আসতে পারে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও ঢাকা বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে।
ঘূর্ণিঝড়টির অবস্থান সম্পর্কে আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, আজ সকালে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ৭৬৯ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ৭১০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ৬৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে অবস্থান করছিল। ঘূর্ণিঝড়ের বাতাসের গতিবেগ ১১০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।
এদিকে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। সেন্টমার্টিন দ্বীপে আটকা পড়েছেন কয়েকশ’ পর্যটক। ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে সাগর কিছুটা উত্তাল থাকায় গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে কক্সবাজার ও চট্টগ্রামে। এর প্রভাবে খুলনায় আজ সকাল থেকেই রোদের দেখা পাওয়া যায়নি। সেখানে আকাশে কালো মেঘ জমে আছে। তবে কোনো বাতাস নেই, নেই বৃষ্টিও।
ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আজই বাতাসসহ বড় ধরনের বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা নেই। তবে আজ সন্ধ্যা থেকে থেমে থেমে বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।
কবে নাগাদ ঘূর্ণিঝড় বুলবুল বাংলাদেশ সীমান্ত অতিক্রম করতে পারে-এমন প্রশ্নে আবহাওয়াবিদরা বলেছেন, ‘এটি আগামীকাল শনিবার রাত এবং পরের দিন রোববার সকাল নাগাদ বোঝা যাবে। তবে এখন যে গতিবিধি রয়েছে তাতে বরিশাল, খুলনা দিয়ে অতিক্রম করার সম্ভাবনা রয়েছে।
এই মূহূর্তে যে চার নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত রয়েছে, সেটি আজ সকাল থেকেই শুরু হয়েছে বলেও জানান আবহাওয়াবিদরা। এ কারণে নদীবন্দরগুলোতে অতীব সতর্কতার সহিত চলাচল করতে পরামর্শ দিয়েছে স্থানীয় আবহাওয়া অফিস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর


Your IP: 18.204.48.199

%d bloggers like this: