আজ ৩০শে কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৪ই নভেম্বর ২০১৯ ইং

বাকেরগঞ্জের একটি অন্যতম বিদ্যাপীঠ গারুড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়

মশিউর রহমান, বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি || বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলা জুড়ে ৮৭ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে সাফল্যের ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন রেখে শিক্ষা ক্ষেত্রে শীর্ষ অবস্থানে উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নের গারুড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়। কঠোর শৃঙ্খলা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে গড়ে ওঠা এই বিদ্যালয়টি ১৯৪৬ সালে বিশিষ্ট দান বীর ও শিক্ষা অনুরাগী অতুল চন্দ্র বন্ধোপাধ্যায় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠা কালীন সময় হতে অত্যান্ত বিরুপ পরিস্থিতি মোকাবিলা করে অবহেলিত জনগোষ্ঠীর মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে এই বিদ্যালয় অনেক ভূমিকা রাখেন। বর্তমানে ৬৬০ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত, শিক্ষার মান, সু-শৃঙ্খল আদর্শ্য ও সৌহার্দ্য পূর্ণ পরিবেশ বজায় রেখে নিয়মিত পাঠদানে উপজেলার শীর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সাফল্যের ধারা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে এই বিদ্যালয়টি। একই সাথে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাঃ ফরিদুজ্জামান খান উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে পুরুস্কৃত হয়েছেন। তার নেতৃত্বে বর্তমানে ১৯ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে আপ্রান প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিদ্যালয়ের মানিজিং কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও গারুড়িয়া ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির সভাপতি এস এম কাইয়ুম খান নিঃস্বার্থ ভাবে বিদ্যালয়ের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় পরামর্শ ও সহযোগিতা করে চলছে। ১২ জন স্হায়ী দাতা ও ৩১ জন অস্থায়ী দাতার অনুদান ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ক্রমেই এগিয়ে চলছে বিদ্যালয়টির উন্নয়ন কার্যক্রম। উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থায় আধুনিকতার ছোঁয়া লেগে এরই মধ্যে বিদ্যালয়টির আকাশ ছোঁয়া সাফল্যের কারণে সকল অভিবাবকদের পছন্দের শীর্ষ হয়ে উঠতে শুরু করছে। যা অত্র প্রতিষ্ঠানের অদূর ভবিষ্যতে আরো সাফল্যের ইঙ্গিত বলে মনে করেন অত্র এলাকার সচেতন জনগন।মশিউর রহমান, বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি |

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলা জুড়ে ৮৭ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে সাফল্যের ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন রেখে শিক্ষা ক্ষেত্রে শীর্ষ অবস্থানে উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নের গারুড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়। কঠোর শৃঙ্খলা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে গড়ে ওঠা এই বিদ্যালয়টি ১৯৪৬ সালে বিশিষ্ট দান বীর ও শিক্ষা অনুরাগী অতুল চন্দ্র বন্ধোপাধ্যায় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠা কালীন সময় হতে অত্যান্ত বিরুপ পরিস্থিতি মোকাবিলা করে অবহেলিত জনগোষ্ঠীর মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে এই বিদ্যালয় অনেক ভূমিকা রাখেন। বর্তমানে ৬৬০ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত, শিক্ষার মান, সু-শৃঙ্খল আদর্শ্য ও সৌহার্দ্য পূর্ণ পরিবেশ বজায় রেখে নিয়মিত পাঠদানে উপজেলার শীর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সাফল্যের ধারা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে এই বিদ্যালয়টি। একই সাথে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাঃ ফরিদুজ্জামান খান উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে পুরুস্কৃত হয়েছেন। তার নেতৃত্বে বর্তমানে ১৯ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে আপ্রান প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিদ্যালয়ের মানিজিং কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও গারুড়িয়া ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির সভাপতি এস এম কাইয়ুম খান নিঃস্বার্থ ভাবে বিদ্যালয়ের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় পরামর্শ ও সহযোগিতা করে চলছে। ১২ জন স্হায়ী দাতা ও ৩১ জন অস্থায়ী দাতার অনুদান ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ক্রমেই এগিয়ে চলছে বিদ্যালয়টির উন্নয়ন কার্যক্রম। উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থায় আধুনিকতার ছোঁয়া লেগে এরই মধ্যে বিদ্যালয়টির আকাশ ছোঁয়া সাফল্যের কারণে সকল অভিবাবকদের পছন্দের শীর্ষ হয়ে উঠতে শুরু করছে। যা অত্র প্রতিষ্ঠানের অদূর ভবিষ্যতে আরো সাফল্যের ইঙ্গিত বলে মনে করেন অত্র এলাকার সচেতন জনগন।মশিউর রহমান, বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি |

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলা জুড়ে ৮৭ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে সাফল্যের ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ন রেখে শিক্ষা ক্ষেত্রে শীর্ষ অবস্থানে উপজেলার গারুড়িয়া ইউনিয়নের গারুড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়। কঠোর শৃঙ্খলা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে গড়ে ওঠা এই বিদ্যালয়টি ১৯৪৬ সালে বিশিষ্ট দান বীর ও শিক্ষা অনুরাগী অতুল চন্দ্র বন্ধোপাধ্যায় প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠা কালীন সময় হতে অত্যান্ত বিরুপ পরিস্থিতি মোকাবিলা করে অবহেলিত জনগোষ্ঠীর মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে এই বিদ্যালয় অনেক ভূমিকা রাখেন। বর্তমানে ৬৬০ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত, শিক্ষার মান, সু-শৃঙ্খল আদর্শ্য ও সৌহার্দ্য পূর্ণ পরিবেশ বজায় রেখে নিয়মিত পাঠদানে উপজেলার শীর্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে সাফল্যের ধারা বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে এই বিদ্যালয়টি। একই সাথে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাঃ ফরিদুজ্জামান খান উপজেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে পুরুস্কৃত হয়েছেন। তার নেতৃত্বে বর্তমানে ১৯ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিতে আপ্রান প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বিদ্যালয়ের মানিজিং কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও গারুড়িয়া ইউনিয়ন জাতীয়পার্টির সভাপতি এস এম কাইয়ুম খান নিঃস্বার্থ ভাবে বিদ্যালয়ের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় পরামর্শ ও সহযোগিতা করে চলছে। ১২ জন স্হায়ী দাতা ও ৩১ জন অস্থায়ী দাতার অনুদান ও সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় ক্রমেই এগিয়ে চলছে বিদ্যালয়টির উন্নয়ন কার্যক্রম। উপজেলা সদরের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থায় আধুনিকতার ছোঁয়া লেগে এরই মধ্যে বিদ্যালয়টির আকাশ ছোঁয়া সাফল্যের কারণে সকল অভিবাবকদের পছন্দের শীর্ষ হয়ে উঠতে শুরু করছে। যা অত্র প্রতিষ্ঠানের অদূর ভবিষ্যতে আরো সাফল্যের ইঙ্গিত বলে মনে করেন অত্র এলাকার সচেতন জনগন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর


Your IP: 34.231.21.123

%d bloggers like this: