আজ ২৬শে অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১১ই ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

রাজগঞ্জের ঝাঁপায় ঘুর্ণিঝড় বুলবুল’র প্রভাবে দরিদ্র পেঁপে চাষি সরোয়ারের ১২লক্ষ টাকার পেঁপে বিক্রির স্বপ্নভঙ্গ

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি॥ গত শনিবারের ঘুর্ণিঝড় বুলবুল’র প্রভাবে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জের ঝাঁপা গ্রামের দরিদ্র পেঁপে চাষি সরোয়ারের স্বপ্ন। এদিন রাতে ঝড়ো হাওয়ায় ফলন্ত পেঁপে গাছগুলোর মাঝা থেকে ভেঙ্গে লুটিয়ে পড়েছে মাটিতে। শেষ হয়ে গেছে দরিদ্র এই কৃষকের আশা।

সোমবার সকালে ঝাঁপা পুলিশ ফাঁড়ির সামনে সরোয়ারের পেঁপে ক্ষেতে গিয়ে দেখা গেছে, তার পেঁপে ক্ষেতে মাঝা ভেঙ্গে পড়ে থাকা কয়েক শত ফলন্ত পেঁপে গাছ। পাশে মাথায় হাত দিয়ে বসে আছেন দরিদ্র কৃষক সরোয়ার (৫০)।

জানাগেছে, তিনি বুকভরা আশা নিয়ে গত ২/৩ বছর আগে ঝাঁপা গ্রামের আকবার হোসেনের ৫বিঘা জমি বাৎসরিক ১ লক্ষ টাকা চুক্তিতে লীজ নিয়ে কুলের চাষ করেছিলো। সেই কুলের চাষে বড় অংকের লোকসান হয়েছিলো। সেই লোকসান পুশিয়ে নিতে গত বছর একই জমিতে চাষ করে পেঁপে। পেঁপে গাছে যখন ফলন এসেছে, ঠিক তখনি ঘুর্ণিঝড় বুলবুল’র প্রভাব পড়েছে সেখানে। স্বপ্ন ভেঙ্গেছে দরিদ্র চাষি সরোয়ারের।

পেঁপে ক্ষেত মালিক সরোয়ার হোসেন বলেন, ধার-দেনা ও এনজিও থেকে ঋণ করে ৫ বিঘা জমিতে সাড়ে ৫লক্ষ টাকা খরচ করে পেঁপে চাষ করেছি। ফলনও ধরেছে। সবে মাত্র বিক্রি শুরু হয়েছে। তিনি আরো জানান, এই পেঁপে ক্ষেতের মধ্যেই ছিলো আমার বেঁচে থাকার স্বপ্ন। আমি এই পেঁপে ক্ষেত থেকে ১২লক্ষ টাকার পেঁপে বিক্রির আশা করেছিলাম। কিন্তু ঝড়ে আমার সব আশা শেষ হয়ে গেছে।

সরেজমিনে আরো দেখা গেছে, ওই পেঁপে ক্ষেতে প্রায় ৯০ ভাগ পেঁপে গাছ ভেঙ্গে গেছে।
এবিষয়টি উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরকে জানানো হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ্য সরোয়ার হোসেন ঝাঁপা গ্রামের মৃত কুবা ফারাজীর ছেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর


Your IP: 3.229.122.219

%d bloggers like this: